সর্বশেষ খবর

শুভম্ মিউজিক্যাল গ্রুপের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

নুর মোহাম্মদ :

বিশ্ববরেণ্য কালজয়ী মণীষা কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আত্ম অনুভবে”জগতের আনন্দ যজ্ঞে আমার নিমন্ত্রণ” কিংবা “আনন্দলোকে মঙ্গলালোকে বিরাজ সত্য সুন্দর”…অমর কথাগুলো সত্যিই মহাবাস্তব।বহুযোনী পথ পরিভ্রমণ ও বহু সাধনার মহাফসল মহাদুর্লব এই মানবজীবন।একজন মানব শিশু যখন পৃথিবীতে অবতীর্ণ হয় ধরাতলে নেমে আসে আনন্দের কলৌরব।
ধর্মীয় রীতি,নীতি,প্রথা, আচার,আচরণ,অনুশাসন ও সামাজিক সংস্কার,কর্তব্য, কৃষ্টি অনুসারে তার জন্যে বাঁধা থাকে কিছু সামাজিক নিয়ম,কানুন ও আচার-আনুষ্ঠানিকতা।যে সামাজিকতা গুলো পালনের মাধ্যমে সমাজবদ্ধ জীবন হয়ে উঠে ঐক্য ও
সু-শৃঙ্খলাবদ্ধ।পাশাপাশি সকলে সঞ্চয় করে মহাপূণ্য।
তেমনই একটি সংস্কার হলো শুভ অন্নপ্রাশন তথা শিশুমুখে প্রথম অন্নস্পর্শ অনুষ্ঠান। গত ৬ ও ৭ জুন রোজ বৃহস্পতি ও শুক্রবার দুইদিনব্যাপী বোয়ালখালীস্থ পোপাদিয়া সিদ্ধ ধর্মপীঠ শ্রীশ্রীকালাচাঁদ ঠাকুর বাড়ী ও বিপ্লবতীর্থ রাউজান উপজেলাস্থ শ্রীশ্রীঅন্নদাঠাকুর আদ্যাপীঠ রামকৃষ্ণ সংঘ প্রকাশ আদ্যাপীঠাঙ্গনে আন্তর্জাতিক মাতৃভক্তি দিবস উদযাপন পরিষদ(IMRDSA) বাংলাদেশ’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি,মনস্বী শিক্ষাবিদ্,গবেষক ও বহুবিধ গ্রন্হপ্রণেতা মাতৃসাধক প্রফেসর ডা.সুনীল কান্তি বিশ্বাস(ভক্তি-রত্ন)’র নাতি ও নন্দিত চণ্ডী-গীতা ও লীলামৃত পরিবেশক, সাংস্কৃতিককর্মী,সংগঠক, কলামিস্ট ও শুভম্ মিউজিক্যাল গ্রুপ(SMG)’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি গীতানুধ্যায়ী ডা.সুপণ বিশ্বাস(শঙ্করেশ)’র পুত্ররত্ন শ্রী শাশ্বত বিশ্বাস(ধ্রুব)’র শুভ অন্নপ্রাশন উপলক্ষে আয়োজন করা হয়েছিলো মাঙ্গলিক ও শিক্ষনীয় অনুষ্ঠান।অনুষ্ঠানের প্রথম দিনে ছিলো বিভিন্ন পীঠস্থানে পূজার্চ্চনা, বৃদ্ধিশ্রাদ্ধ,পিণ্ডদান,অন্নপ্রাশন ও প্রসাদ আস্বাদন।দ্বিতীয় দিনে মহাপীঠ আদ্যাপীঠ অঙ্গনে শুরুতে মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বোলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন আন্তর্জাতিক সংগঠন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ(WHA)’র নির্বাহী সদস্য কর্মবীর শ্রীমৎ তপানন্দ দাস বাবাজী মহারাজ,আধারমানিক গৌরাঙ্গ মন্দিরের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ পরিমলানন্দ পুরী মহারাজ,আদ্যাপীঠ প্রধান পুরহিত শাস্ত্রজ্ঞ শ্রীতপন চক্রবর্তী।শুভম্ মিউজিক্যাল গ্রুপ
(SMG)’র সাধারণ সম্পাদক বিটু কান্তি দে ও চট্টগ্রামস্থ বাগীশ্বরী সঙ্গীতালয়ের সাংগঠনিক সম্পাদক সংগঠক যীশু সেনের যৌথ সঞ্চালনে অনুষ্ঠানে পবিত্র বেদবাণী ও উপনিষদ পাঠ করেন রাউজান গীতা শিক্ষা কমিটি(রাগীশিক)দক্ষিনের সভাপতি জ্যোতিষশাস্ত্রী জে কে শর্ম্মা জনি,চণ্ডী পাঠ করেন রাউজান পাঁচখাইন দক্ষিনেশ্বরী কালী মন্দিরের প্রধান পুরহিত মাতৃপ্রেমী কবিরাজ বটন কান্তি দেবনাথ,গীতামৃত পরিবেশন করেন কন্ঠশিল্পী গীতাপ্রেমী প্রদীপ মজুমদার ও রাগীশিক দক্ষিনের সাধারণ সম্পাদক সংগীত শিল্পী রাকাশ সরকার।অনুভবের আলোকে অনুভুতি ব্যক্ত,অাশীর্বাণী ও শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আন্তর্জাতিক মাতৃভক্তি দিবস উদযাপন পরিষদ(IMRDSA)’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বহুমাত্রিক প্রতিভাধর ব্যক্তিত্ব জ্ঞানভাষ্কর পণ্ডিত প্রফেসর ডা.সুনীল কান্তি বিশ্বাস,বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী রাউজান শাখার সভাপতি অব:প্রধান শিক্ষক শিক্ষাবিদ্ সাধন কৃষ্ণ চৌধুরী,সাধারণ সম্পাদক ব্যাংকার প্রণব বড়ুয়া,জাতীয় সরকারী কর্মসংস্থান ব্যাংকের কর্মকর্তা প্রকৌশলী রাজু দাশ,কাপ্তাই প্রেস ক্লাব ও সাংস্কৃতিক একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব প্রশিক্ষক ঝুলন দত্ত, রাউজান রাইটার্স ক্লাব ও চট্টগ্রাম লেখক সাংবাদিক ফোরামের সি:সহ সভাপতি কবি ও লেখক নুর মোহাম্মদ, রাউজান সাহিত্য পরিষদ (রাসাপ)’র সভাপতি সংগঠক ও লেখক মহিউদ্দিন ইমন,সহ সভাপতি সাহিত্যপ্রেমী আহম্মদ সৈয়দ,সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নেজাম  উদ্দিন রানা,লেখক ও সংগঠক কাজী ফজলুল আজিজ, চট্টগ্রামস্থ অন্তরা হাইওয়ান গিটার শিল্পীগোষ্ঠী ও স্বামী বিবেকানন্দ সংসদের প্রতিষ্ঠাতা কর্মকর্তা প্রাক্তন ইউ পি সদস্য দুলাল কান্তি দে,চট্টগ্রাম বিবেকানন্দ শিক্ষা ও সংস্কৃতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক শিক্ষানুরাগী দীপ নারায়ণ চৌধুরী,নোয়াপাড়া এম বি মল্লিক উচ্চ বিদ্যালয়ের অব:প্রধান শিক্ষক রবীন্দ্র লাল সরকার,গুজরা শ্যামাচরণ উচ্চ বিদ্যালয়ের অব:সহ-প্রধান শিক্ষক ও স্বামী ভোলানন্দ পুরী ভুবনেশ্বরী-কালী-গীতামাতা সেবাশ্রমের প্রতিষ্ঠাতা মুক্তিযোদ্ধা নির্মল চন্দ্র দে,বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ রাউজান উপজেলা দক্ষিন’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আওয়ামিলীগ নেতা বিশ্বজিৎ চৌধুরী,রাউজান
ফকিরহাট কালী বাড়ী ও বনিক কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক সমাজ অনুভাবক সঞ্জীব দত্ত,গশ্চি উচ্চ বিদ্যালয়ের অব: ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক প্রগতিশীল রাজনীতিক কর্মী দিলীপ দাশগুপ্ত,মিরেশ্বরাই ঐতিহ্যবাহী জামালপুর কালী বাড়ীর সভাপতি সমাজহিতৈষী প্রদীপ সেন,আদ্যাপীঠ ট্রাষ্টি বোর্ড সদস্য কাঞ্চন তালুকদার,রাউজান কলমপতি সমাজ কল্যাণ পরিষদ সভাপতি……..,
১১ নং পশ্চিম গুজরা ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদ সভাপতি সমাজসেবী মিঠু মজুমদার,
উত্তর গুজরা সবুজ সংঘ কর্মকর্তা বিদ্যুৎ মজুমদার,বিপ্লবী মাস্টারদা সূর্য্যসেন কিন্ডারগার্টেন পরিচালনা পরিষদ সদস্য শিক্ষক বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য ও সুজন দে,নোয়াপাড়া আইডিয়াল স্কুল চেয়ারম্যান ও সেন্ট্রাল বয়েজ অব রাউজান কর্মকর্তা ব্যাংকার এম আইয়ুব খাঁন,প্রধান শিক্ষক সংগঠক ফজল করিম,ঝুঁমকা তবল প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা তবলা শিল্পী প্রশিক্ষক পার্থ দাশ,
মানবাধিকার কর্মী লায়ন ডা.পুষ্পিতা রাণী দে বেবী,
মানবাধিকার কর্মী ডা.দুলাল কান্তি সিকদার,নোয়াপাড়া
একতা সংঘের সহ-সাধারণ সম্পাদক শিক্ষানুরাগী হৃষীকেশ ঘোষ, নোয়াপাড়া রাধামুকুন্দ সেবা কুঞ্জের সাধারণ সম্পাদক সুমন মল্লিক,উত্তর আধারমানিক শান্তি সমিতির সহ-সভাপতি প্রণব বিশ্বাস,
রাঙ্গামাটি কাউখালী বাজার ব্যাবসায়ী সমিতি ও বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক পরিষদ(BHP) কাউখালী শাখার সভাপতি ডা.সুপ্রিয় বিশ্বাস(ওঙ্কারেশ),
মানিকছড়ি গোদারপাড় মহাযোগী বাবা লোকনাথ সেবাশ্রমের সভাপতি লেখক ডা.প্রাণেশ বিশ্বাস(লিটন),
মানবাধিকার কর্মী প্রকৌশলী জুয়েল সিকদার জয়।বক্তাগন বলেন—আজকের যে শিশু সে আগামীর মহামানব কিংবা দেশের জাতীয় কর্ণধার।
অতএব শিশু বয়স থেকে প্রতিটি সন্তানের করণীয় কর্তব্য গুলো পারমার্থিক ধ্যান ধারণায় সম্পন্ন করা সকলের নৈতিক দায়িত্ব- কর্তব্য।এতে সমাজ হবে সুন্দর,সভ্য ও আলোকিত।
আলোচনা সভা শেষে নন্দিত কন্ঠশিল্পী মনসুর আলমের কন্ঠে “মেরে মানমে বাচিয়ে রাম,মেরে তানমে বাচিয়ে রাম”,শিল্পী সুজন ঘোষের কন্ঠে-জয় মা বল সবে ভক্তি অন্তরে আদ্যাশক্তির জয়”,শিল্পী পঙ্কজ বনিকের কন্ঠে-“তোমরা কুঞ্জ সাঁজাওগো, আজ আমার প্রাণনাথ আসিতে পারে”,শিল্পী ইসিতা গোল্দারের কন্ঠে-“ও মন ময়না তোরা কৃষ্ণকথা বল,
তোরা হরি কথা বল”,শিল্পী রিটন দাসের কন্ঠে-খাঁচার ভেতর অচীন পাখি কেমনে আসে যায়” প্রাণোদ্দীপ্ত সংগীত সমুহের সুরের ঝর্ণাধারায় মেতে উঠে সমগ্র অনুষ্ঠানাঙ্গন।সমাগত দর্শকদের বাড়তি আনন্দ দিতে নৃত্য পরিবেশন করেন ঝুমকা তবলা ও নৃত্য একাডেমীর নৃত্যশিল্পী- অর্পিতা দাস ও অঙ্কিতা দাস,শ্রীমা সঙ্গীত বিদ্যাপীঠের নৃত্যশিল্পী- পূজা বিশ্বাস,গায়ত্রী নৃত্য একাডেমী ও শুভম্ সঙ্গীত বিদ্যাপীঠের নৃত্য শিল্পী-দীপান্বিতা দাস ও শান্ত্বা দাস।নৃত্য-আদ্যাস্তোত্র পাঠ ও প্রসাদ আস্বাদন শেষে অনুষ্ঠিত হয় “কালী-কৃষ্ণ” ও “বিদ্যা-ধন” শীর্ষক পাল্টা কীর্ত্তন।পরিবেশন করেন বিশিষ্ট কীর্ত্তনীয়া অমর চক্রবর্তী ও জে কে শর্ম্মা জনি।সমগ্র অনুষ্ঠানে যন্ত্রাংশে সহযোগিতা করেন কিবোর্ডে-ঝুলন দত্ত,সুমঙ্গল চক্রবর্তী ও সুজন ঘোষ,
অক্টোপ্যাডে-সুমন দাশগুপ্ত,দোলন মহাজন ও রিটন দাস,তবলায়-ঝুলন দত্ত,পার্থ দাস,পঙ্কজ বনিক,
রকি বিশ্বাস ও অর্ণব মল্লিক,
মৃদঙ্গে-রিটন দাস ও প্রদীপ মজুমদার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আনন্দন সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিশেষ সংগীতানুষ্ঠান “বৃদ্ধাশ্রম”

যীশু সেন : বৃদ্ধাশ্রম নয়, পরিবার ও সন্তানই হোক বাবা মায়ের শেষ ...